Resize text-+=
Wednesday June 29, 2022

The Portrait of a Poet

Atul Bose was an artist of the European academic school who is most strongly remembered for his portraits. The anti-British nationalist movement of the early 20th century shaped his identity as an artist to a great extent. He received his formal education in Kolkata and England. Ilora Basu, the daughter-in-law of the legendary artist shares her views on his last portrait.

The pastel portrait of Rabindranath Tagore was created by the legendary painter late Atul Bose, my father-in-law. This portrait is very different from other portraits of Tagore that we usually see. This brilliant, lively, “Baul Rabindranath” was sketched when Bose was 80 years old and had nearly lost his vision. He did many portraits of Tagore, either bust or life size, using different media like pencil, charcoal, and oil. This is the last one of them.

I remember the evening in 1976 when I first set my eyes on this vibrant piece of art. My husband Abhijit and I had returned to Kolkata with our son Joy after spending five years in the US. As we entered the house, he took us to his studio and showed us his latest creation. He captioned this picture ‘aji hote shoto borsho pore’ (A Hundred Years Hence), the first line of a poem by Tagore written in February 1896.

The original portrait is part of the family collection in Kolkata. Unfortunately, the condition of this painting is deteriorating. The pastels are crumbled and stuck to the glass. We are happy to have this photograph in our house in Bloomington. It was taken though the framed glass pane of the original.

Atul Bose painted his first portrait of Tagore from life in the 1930s in Santiniketan, for which Tagore had agreed to sit. Nandalal Bose and a few others were also present. Upon seeing the portrait Tagore had famously exclaimed “how could you capture my inner self?”.

This last portrait in pastel is the result of a single frenzied dawn to dusk sitting on May 8, 1976, the poet’s birth anniversary. This portrait reveals layers of mood, emotion, and persona in the eyes of a beholder. One might ask, does it convey the personality of the carefree grandpa of The Post Office? Or, does it reflect the despair of Tagore about to pen Crisis in Civilization? Are the eyes and the subtle facial twitch expressing gratitude for the unparalleled gifts he had received in life? Or, is he apprehensive that his works will not survive the test of time? Perhaps dedicating his poetry to that revering soul who may pick them up in awe from the dusts of time. 

The artist’s choice for the title of the painting, “A Hundred Years Hence”, however, is from a poem that conveys happy lyrical anticipation.

Tags

2 Responses

  1. রবীন্দ্রনাথের এই দুর্লভ চিত্রাঙ্কনটি বিশশতকের বরিষ্ঠ শিল্পী শ্রী অতুল বোস এর শেষ জীবনের অন্যতম মহৎ সৃষ্টি / কবির সান্নিধ্য ও উদার স্নেহ তিনি পেয়েছিলেন এবং তাঁর জীবন কালে তাঁর বেশ কয়েকটি
    পূর্ণাবয়ব বা আংশিক প্রতিকৃতি তেলরঙে এঁকেছিলেন / এই চিত্রটি কবি’র প্রয়ানের ৩৫ বছর পরে শিল্পী তাঁর নিজের কল্পদৃষ্টিতে রচনা করেছিলেন/ ১৯৭৬ সালে / রবীন্দ্রনাথ তাঁর প্রতিভা বিকীর্ণ করেছিলেন কাব্য, সংগীত, প্রবন্ধ, নাটক, নৃত্যনাট্য, রস রচনা শিক্ষা, রাষ্ট্রনীতি, বিজ্ঞান, উপন্যাস, ছোটগল্প, এবং ধর্ম ও স্বাধীনতা বিষয়ক নানা সৃষ্টির পথে / কিন্তু তার ব্যাক্তিমানসের আরেকটি অনবদ্য প্রকাশ ছিল তাঁর চিত্রকলা তে / সেই বিরাট ব্যাপ্তির মধ্যে আমরা রাশি রাশি রবীন্দ্রনাথ কে দেখতে পাই/ কখনো তিনি ধ্যানমগ্ন বৈদান্তিক ঋষি, কখনো নিপীড়িত মানুষের পাশে যন্ত্রনা-বিদ্ধ ঋজু প্রতিবাদী / কখনো আমাদের কাছেরমানুষ, প্রিয় শিক্ষক, জাতির গুরুদেব / কখনো উদাসী সুরের সাধক আর কখনো শিশুদের প্রাণের কবি, কখনো তিনি বাউল-তানে ছন্দিত, কখনো জীবন তরণী’র বিমুগ্ধ যাত্রী / আমাদের মধ্যে যিনি যেভাবে তাঁর কবিসত্তাকে দেখতে চান, তেমন ভাবে তাঁকে চিনতে পারেন / শ্রী অতুল বোসের এই সৃষ্টি শিল্পীর অন্তর-নিঃসৃত ভালোবাসায় উৎসারিত মানসপ্রতিমা / এখানে আমাদের চিরপরিচিত রবীন্দ্রনাথ এক অপরূপ প্রাণবন্ত রূপে প্রকাশ পেয়েছেন / এটি যেন অস্তমিত সূর্য্যের প্রনামে একজন রং-তুলিকা’র কবি দীপহস্তে সন্ধ্যারাগে গান গেয়ে উঠলেন./ এর আগে আমরা মহান শিল্পী শ্রী নন্দলাল বসু’র সৃষ্টিতে রবীন্দ্রনাথকে একজন আনন্দময় বাউল রূপে পেয়েছিলাম / স্বর্গত: শিল্পী অতুল বোসের পুত্রবধূ ড: ইলোরা বসু তাঁর মহামূল্য উত্তরাধিকার কে কন্যাসম ভালোবাসায় সযত্নে উপস্থাপনা করে সারা জগতের শিল্প ও কৃষ্টির ভাণ্ডার কে সমৃদ্ধ করলেন, সেজন্য তিনি আমাদের সকলের ধন্যবাদার্হ/
    -[ ড:] শক্তিপ্রসাদ মুখার্জী, রকভিল , মেরিল্যান্ড / অগাস্ট ১০, 2020

  2. This portrait of Rabindranath Tagore was created by the eminent Indian artist Late Atul Bose 35 years after the great poet’s departure from this world. Thus it is a unique presentation of Tagore emerging from the heart of the painter as he conceived one aspect of his essential persona from his long association with his celebrated subject whom he portrayed in several oil paintings in his full figure or the bust. The artiste dedicated himself to this creation at a time when he was approaching his own tolling bell, with an urgency of a poet within himself. The outcome has been an exquisite tribute from a ‘poet of the colors’ singing an evening‘Raga’ to the ‘Sun of genius’ post-its setting. The artiste’s daughter-in-law Dr. Ilora Basu has rendered an immense benefit to the world of the arts and culture by publishing this invaluable piece of fine art. She has earned our heartfelt gratitude for this.
    – [Dr.] Sakti Prasad Mukherjee, Rockville, Maryland. August10, 2020.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

SUBSCRIBE TO NEWSLETTER

Multimedia

Member Login

Submit Your Content